গুগল কি? গুগলের ২৫ টি অজানা মজার তথ্য যা আপনার জানা প্রয়োজন

গুগল কি: বর্তমান এই প্রযুক্তির যুগে গুগল এর নাম শুনেনি এমন লোক খুজে পাওয়া বড়ই ভার। কোন কিছু জানার প্রয়োজন হলেই চলে যাই গুগোল এ। গুগোল খুব সুন্দর মতো আমার সামনে তথ্য নিয়ে আসে। সবই বুঝলাম। কিন্তু গুগল সম্পর্কে আপনি কতটুকু জানেন? যদি আমরা না জানি, তাহলে চলুন গুগল সম্পর্কে কিছু জানা যাক। কি কি জানবো আজ? গুগল কি, গুগল ইমেজ সার্চ, গুগল অর্থ, গুগলের জনক, গুগল সার্ভার গুগলের প্রতিষ্ঠাকাল, গুগল ডুডল, গুগল একাউন্ট, গুগলের জন্মদিন কবে ইত্যাদি।

পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষ গুগল ব্যবহার করে। তাই গুগল পূর্বে সার্চ ইঞ্জিন থাকলেও, এখন শুধু সার্চ ইঞ্জিন নয়। এখন গুগল বড় একটি কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে।

১. গুগল অর্থ কি?

আমরা সবাই গুগল ব্যবহার করি কিন্তু গুগল এর অর্থ অনেকেই জানিনা। গাণিতিক Googol থেকে গুগল শব্দটি নেওয়া হয়েছে, যার অর্থ ১ এর পরে ১০০ টি শূণ্য দিলে যা হয়। মূলত গুগল কর্তৃপক্ষ ইন্টারনেটের বিশাল তথ্য ভান্ডার এর বিশালতাকে আমাদেরকে বোঝানোর জন্য গুগল নামটি ব্যবহার করে। তাহলে গুগল নাম থেকেই আমরা গুগলের বিশালতাকে বুঝতে পারি। এখানে রয়েছে আমাদের জন্য তথ্যভান্ডার। আশা করব আপনারা গুগল অর্থ কি বা গুগল সার্চ ইঞ্জিন কি, এর মানে খুঁজে পেয়েছেন।

২. গুগল কে আবিষ্কার করেন বা এর জনক কে?

গুগলের জনক বা আবিষ্কার হল Larry Page এবং Sergey Brin.  যখন তারা Stanford University তে পিএইচডি করেছিলেন, তখন তারা রিসার্চ প্রজেক্ট হাতে নিয়েছিল। সেই রিসার্চ প্রজেক্ট এর অন্তর্ভুক্ত হিসেবে তারা গুগল এর উপর কাজ শুরু করে। তাদের এই রিসার্চ প্রজেক্ট এর ফলস্বরূপ আমরা গুগল পেয়েছি।

৩. গুগল এর প্রতিষ্ঠা কবে হয়?

১৯৬৬ সালে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’জন পিএইচডি কোর্সের ছাত্র ল্যারি পেজ এবং সার্গেই ব্রিন গুগলের কাজ শুরু করেন। ১৯৯৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর দুই বন্ধু একটি প্রাইভেট কোম্পানি হিসেবে গুগলের যাত্রা শুরু করেন। সুতরাং ১৯৯৮ সালের ৪ ই সেপ্টেম্বর গুগোল প্রতিষ্ঠা লাভ করে

গুগোল প্রতিষ্ঠা

ডোমেইন নাম নিবন্ধিন করা হয় ১৫ই সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭ সালে। তারা তাদের প্রতিষ্ঠান এর নাম দিয়েছিল ব্যাকরাব। অর্থাৎ যে পদ্ধতিতে একটি ওয়েবসাইট অন্য একটি ওয়েবসাইটকে খুঁজে বের করে তার নাম হচ্ছে ব্যাকরাব। তাদের উদ্দেশ্য ছিল এমন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা, যার মাধ্যমে অন্যান্য ওয়েব পেজ গুলোর তালিকা তৈরি করা যায়। বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করা হয়েছিল তাদের উদ্দেশ্য।

৪. গুগলের হেডকোয়ার্টার কোথায় অবস্থিত?

গুগলের হেডকোয়ার্টার কে গুগলপ্লেক্স বলা হয় এবং এটি ক্যালিফোর্নিয়ার সিলিকন ভ্যালিতে অবস্থিত।

৫. গুগল এর মূলমন্ত্র বা আদর্শ কি?

google এর মূলমন্ত্র বা আদর্শ  হচ্ছে ”Don’t be evil” বা “কখনো দুষ্টুতে পরিণত হয়ো না”।

৬. পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ভিজিটেড ওয়েবসাইট হচ্ছে গুগল। ইন্টারনেট ব্যবহার করে অথচ google-এ সার্চ করে নি, এমন লোক হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না।

৭. গুগলে প্রতি সেকেন্ডে প্রায় সাড়ে 3 বিলিয়ন অনুসন্ধান চালানো হয় এবং প্রতি সেকেন্ডে গুগল প্রায় গড়ে 40 হাজার তথ্য বের করে।

৮. ১৯৯৯ সালে Larry Page এবং Sergey Brin গুগলকে ১ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু গুগলকে কিনবে এমন কোনো গ্রাহক ছিল না। এমনকি তারা দাম কমিয়ে দিয়েছিল। তারপরে কেউ google কিনতে চায় নি। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে এখন গুগলের মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় 300 বিলিয়ন ডলার। পূর্বে যারা google কিনতে চেয়েছিল না, হয়তো এখন তারা আফসোস করতেই পারে।

৯. গুগল ডুডল কি?

কোনো স্মরণীয় স্মৃতি বা স্মারক এর পরিপ্রেক্ষিতে গুগলের হোমপেজে যে ইমেজ বা ছবি প্রদর্শন করা হয়ে থাকে, তাকে গুগল ডুডল বলে। ১৯৯৮ সালে গুগল প্রথম গুগল ডুডল ব্যবহার করে। বার্নিং ম্যান নামের একটি উৎসব উদযাপনের জন্য প্রথম গুগল ডুডল ব্যবহার করা হয়। তবে মজার বিষয় হচ্ছে, গুগলের কর্মচারীরা সেদিন অফিসে অনুপস্থিত ছিল। আর অনুপস্থিতি এর কারণ ছিল সেই দিবস । তারা সেই দিবস উদযাপনের জন্য অফিসে অনুপস্থিত ছিল এটি বোঝাতে গুগল ডুডল ব্যবহার করেছিল।

বাংলাদেশের বিভিন্ন দিবসে গুগল ডুডল বিভিন্ন ছবি প্রদর্শন করে থাকে। সুতরাং গুগল ডুডল এ বাংলাদেশ।

১০. গুগলের সবচেয়ে স্মরণীয় ডুডল হচ্ছে চাঁদে পানি আবিষ্কার এবং জন লেনিনের জন্মদিন উদযাপন। জন লেনিনের ৭০ তম জন্মদিন পালিত হয়েছিল। আর সেই ডুডলটি ছিল প্রথম গুগল ভিডিও ডুডল। সেই ধারাবাহিকতায় এখনও google গুরুত্বপূর্ণ দিবস বা ব্যক্তি স্মরণে গুগল ডুডল ব্যবহার করে থাকে।

১১. গুগল সার্ভার কি?

গুগলে রয়েছে তথ্য এর সমাহার৷ তাই এর সার্ভার অবশ্যই খুব শক্তিশালী। কিন্তু গুগলের প্রথম সার্ভার রাখা হয়েছিল লেগো দিয়ে তৈরি একটি কাস্টম  কেসে।

১২. জেনে আশ্চর্য হবেন যে, গুগল হেডকোয়ার্টার এর সামনে ডাইনোসর এর এক বিশাল মূর্তি আছে। যার উপর অসংখ্য প্লাস্টিকের তৈরি গোলাপি  ফ্লেমিংগো দেখা যায়। ধারণা করা হয় যে,এর কারণ হচ্ছে, এটি google এর কর্মচারীদের জন্য সতর্কবার্তা। যেন তারা গুগলকে বিলুপ্ত হয়ে যেতে না দেন।

১৩. গুগল ই একমাত্র প্রতিষ্ঠান যারা তাদের কর্মচারীদের বিনামূল্যে খাদ্য পরিবেশন করে। এছাড়া কর্মচারীরা তাদের পোষা কুকুর অফিসে নিয়ে আসার অনুমতি পায়।

১৪. গুগলের হেডকোয়ার্টার একটু বেশি ই সবুজ। মানে হচ্ছে সবুজের সমারোহে ঘেরা। কিন্তু google ঘাস কাটার জন্য কোনো লন-মোয়ার মেশিন ব্যবহার করে না। তারা ছাগল ভেড়া ব্যবহার করে। তাও আবার সেগুলো কিনে নিয়ে আসে।

১৫. গুগল ইমেজ সার্চ:

গুগলের জনপ্রিয় একটি ফিচার হচ্ছে ইমেজ সার্চ। আমরা ইমেজ সার্চ করেও আমাদের তথ্য পেতে পারি। এই ফিচার প্রথম ব্যবহৃত হয়েছিল ২০০০ সালে। যার অনুপ্রেরণা ছিলো জেনিফার লোফেজ। একটি গ্রামি পুরষ্কার অনুষ্ঠানে জেনিফার লোফেজ সবুজ পোষাক পড়েছিল। সেই ছবিটি গুগলে জনপ্রিয় সার্চে পরিণত হয়েছিল।

সুতরাং ইমেজ, সার্চ ইঞ্জিন হিসেবেও কাজ করে থাকে। তাহলে আমরা বুঝলাম ইমেজ সার্চ কি।

১৬. গুগল একাউন্ট কি:

গুগলের আরেকটি জনপ্রিয় ফিচার হচ্ছে জিমেইল সেবা যা ২০০৪ সালের ১লা এপ্রিল চালু হয়। গুগলের সেবাগুলো ব্যবহার করতে হলে একটি গুগল একাউন্ট থাকতে হয়।

১৭. আমরা জানি, যা দ্বারা কাজ করা বুঝায়,তা ক্রিয়াপদ। গুগলকে ক্রিয়াপদ হিসেবে প্রথম অভিধানে যুক্ত করা হয় ২০০৬ সালে। Google এর ক্রিয়াপদ হচ্ছে ‘গুগল করা‘। মিরিয়াম ওয়েবস্টার অভিধানে লিখেছিল, গুগোল করা অর্থ ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব থেকে তথ্য খুঁজে বের করা সুতরাং google করা এটি একটি ক্রিয়াপদ।

১৮. ইউটিউব:

জনপ্রিয় ভিডিও ওয়েবসাইট ইউটিউব গুগলের অন্তর্ভুক্ত হয় 2006 সালে। প্রায় দেড়শ কোটি ডলারে google ইউটিউব কে কিনে নেয়। বর্তমানে ইউটিউব ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় 200 কোটি এবং প্রতি মিনিটে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড হয় প্রায় 400 ঘন্টার।

বর্তমানে ইউটিউব থেকে আয় করা যায়। গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে google অর্থ প্রদান করে থাকে। ইউটিউব থেকে কিভাবে আয় করা যায়, সে সম্পর্কে পরবর্তীতে আলোচনা করব।

১৯. একজন google ইঞ্জিনিয়ার একবার ইন্টারনেট অবস্থার ১২ টা বাজিয়ে দিয়েছিল। ঘটনাটি 2009 সালের। তিনি গুগলের ওয়েবসাইটের রেজিস্ট্রিতে ফরোয়ার্ড স্লাশ(/) যোগ করেছিলেন। যেহেতু প্রায় প্রতিটি ওয়েবসাইটে ফরোয়ার্ড স্লাশ(/) চিহ্নটি থাকে, তাই তখন কোনো ওয়েবসাইটে ঢুকা যাচ্ছিল না।

২০. Google এ যত সার্চ হয় তার 15 পার্সেন্ট হচ্ছে নতুন সার্চ। অর্থাৎ এই টপিক এ এর আগে কখনো সার্চ হয়নি।

২১. গুগলের জন্মদিন কবে?

অনেকেই প্রশ্ন করেন গুগল কবে জন্মদিন পালন করে বা গুগলের জন্মদিন কবে?

গুগলের আসলে 6 টি জন্মদিন রয়েছে। কিন্তু Google কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুধুমাত্র 27 সেপ্টেম্বর তারা জন্মদিন হিসেবে পালন করবে।

২২. Google কি শুধুই সার্চ ইঞ্জিনের জন্য ব্যবহৃত হয়? Google কি কোন বিনোদন নেই! আছে গুগলের হাতে রয়েছে নানা রকম কলাকৌশল। যেমন আপনি যদি “Askew” শব্দটি ইংরেজিতে সার্চ করেন, তাহলে আপনি একটি ম্যাজিক দেখবেন। সেটি হচ্ছে আপনার পুরো ওয়েবপেজটি একদিকে কাত হয়ে যাবে। Google সবকিছুই ব্যবসা নয়, সেখানে মজাদার কিছু বিষয়ও রয়েছে। তাহলে আপনি নিজে একটু শব্দটি সার্চ করে দেখেন।

২৩. এবার আপনাদের খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি তথ্য শেয়ার করি। অ্যাপোলো-11 তে করে মানুষ চাঁদে পাঠাতে যে পরিমাণ কমপিউটিং ক্ষমতা ব্যবহার করা হয়েছিল, মাত্র একটি Google সার্চ করার জন্য সেই পরিমাণ কম্পিউটিং ক্ষমতা বর্তমানে কাজে লাগানো হয়।

২৪. আমরা সবাই জানি গুগল একটি জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। কিন্তু ভবিষ্যতে গুগলে থাকবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং লাইভ ভিডিও গেম খেলার ব্যবস্থা। এমনকি ড্রাইভারবিহীন গাড়ি চলার সুবিধাও Google থেকে পাওয়া যাবে।

২৫. Google বিভিন্ন কোম্পানির বা প্রতিষ্ঠানের মালিক। যেমন ধরুন, গুগল একাউন্ট, গুগল ম্যাপস, google ড্রাইভ, Google ক্রোম। এগুলো তো আছেই, এর বাইরেও 2010 সাল থেকে google প্রায় প্রতি সপ্তাহেই নতুন একটি করে কোম্পানির মালিক হচ্ছে। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড, ইউটিউব, গুগল এডসেন্স এসব প্রতিষ্ঠানের মালিক কিন্তু Google।

আজ আমরা গুগল ইমেজ সার্চ, গুগল অর্থ কি, গুগলের জনক, গুগলের প্রতিষ্ঠাকাল, গুগল ডুডল, গুগল একাউন্ট কি, গুগলের জন্মদিন কবে ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। আশা করি আপনারা আমাদের আলোচনা থেকে উপকৃত হয়েছেন। পরবর্তীতে আমরা Google এর অন্যান্য ফিচার সম্পর্কে আলোচনা করব।

এই বিভাগের অন্যান্য পোস্ট পেতে ভিজিট করুন এখানে

লেখাপড়া টেকনোলজি বিসিএস প্রস্তুতি সহ বিভিন্ন তথ্য পেতে ভিজিট করুন Learning View Bd

1 thought on “গুগল কি? গুগলের ২৫ টি অজানা মজার তথ্য যা আপনার জানা প্রয়োজন”

Leave a Comment